টেলিফোন বুথ গুলোকে ভিন্ন রূপে ফিরিয়ে আনা প্রয়োজন

 

সাইমুম শারিক হিমেল:

ছবির ফোনবুথটি হল প্রত্যন্ত গ্রামের থাকা একটি ফোনবুথ। আর এটি অবস্থিত প্রত্যন্ত গ্রামের ডাকঘর (উখিয়া উপজেলা ডাকঘর) এর সামনে । যার প্রাই সবই অচল হলেও এখন ও টিকে আছে । এখন স্মৃতি বহন করছে ইতিহাস এর।
,
হাতে হাতে এখন মুঠোফোন তাই টেলিফোন বুথ গুলো বেকার। আমাদের দেশে তেমন চল না থাকলেও বিশ্বের অনেক দেশেই যুগ যুগ ধরে ব্যবহৃত হয়ে আসছিলো ফোন বুথ। যা এখন আছে পরিত্যক্ত অবস্থায়।
১৯২৪ সালে গিলবার্টের ডিজাইন করা টেলিফোন বুথ প্রথম চালু করা হয়।
ইংল্যান্ডের বিভিন্ন শহরের রাস্তায় লাল টুকটুকে ফোন বুথ একসময় যেমন ছিলো যোগাযোগের একমাত্র ভরসা তেমনি এগুলো শহরের সৌন্দর্যের অংশও।
মোবাইল ফোন সহজলভ্য হওয়ায় অবহেলায় পড়ে আছে এসব টেলিফোন বুথ। এভাবে পড়ে থাকলে একসময় সংস্কারের অভাবে নষ্ট হওয়ার আশঙ্কা করছে ইতিহাসবিদরা।
ঐতিহ্যবাহী এসব টেলিফোন বুথ টিকিয়ে রাখতে যুক্তরাজ্যের টেলিকম কোম্পানি ‘ব্রিটিশ টেলিকম’একটি “কিয়স্ক” প্রোগ্রাম চালু করেছে।এর আওতায় কেউ খুলেছেন কফি শপ, কেউবা বিক্রি করছেন কোল্ড ড্রিংক্স। রাস্তায় চলতে চলতে সেরে নেয়া যাবে হার্টের চেক আপ, এমন সুবিধাও পাওয়া যাচ্ছে কোন কোন ফোন বুথে। বিকল্প ব্যবহারে কেউ কেউ খুলেছেন লাইব্রেরি।

এমন ইতিহাস আমাদেরও আছে। ইতিহাস রক্ষা, পুনরুদ্ধারের বিভিন্ন উদ্যোগ নিতে পারে আমাদের দেশের প্রশাসনও। তাহলে হয়তো অনেক ইতিহাসই বেঁচে যাবে চূড়ান্ত ধ্বংসের হাত থেকে।

নির্বাহী সম্পাদক, কক্সবাজার টুডে