ঘুমধুমে ইউপি নির্বাচন : সম্ভাব্য মেম্বার পদপ্রার্থী মতবিনিময় সভা

 

রফিকুল ইসলাম, ঘুমধুম:
বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার তিন ইউনিয়ন পরিষদের সাধারণ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হয়েছে। মঙ্গলবার (৩ সেপ্টেম্বর) ইসির উপসচিব মোঃ আতিয়ার রহমান স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তফসিল ঘোষণা করেন। সে অনুযায়ী আগামী ১৪ অক্টোবর নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। বান্দরবান জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মোঃ রেজাউল করিম সংবাদিকদের এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।তফসিল অনুযায়ী নাইক্ষ্যংছড়ি সদর, সোনাইছড়ি ও ঘুমধুম ইউপি নির্বাচনে প্রার্থীদের রিটার্নিং অফিসারের কাছে মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ দিন ১২ সেপ্টেম্বর। মনোনয়নপত্র বাছাই হবে ১৫ সেপ্টেম্বর। আর প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ দিন ২২ সেপ্টেম্বর।
এদিকে নির্বাচনকে ঘিরে ঐ ৩ ইউনিয়নে মানুষের মাঝে বইছে উৎসবের আমেজ। শুরু হয়ে গেছে মনোনয়ন সংগ্রহের পূর্ব প্রস্তুতি। গত ০৫ সেপ্টেম্বর রোজ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৭ ঘটিকার সময় ৩নং ঘুমধুম ইউনিয়ন পরিষদের ৫নং ওয়ার্ডের কে হবে সম্ভাব্য মেম্বার পদপ্রার্থী এই বিষয়কে কেন্দ্র করে সম্ভাব্য মেম্বার পদপ্রার্থী এবং ক্যাফে হাইওয়ের পরিচালক এম ছৈয়দ আলমের বাড়িতে নির্বাচনী মত বিনিময় সভার আয়োজন করা হয়।উক্ত সভায় সভাপিতত্ব করেন ঘুমধুম ঘোনারপাড়ার প্রবীণ মুরুব্বি জাফর আলম সর্দার। মত বিনিময় সভায় উপস্থিত থেকে নিজেদের মতামত তুলে ধরেন সেলিম আজাদ, আব্দুস সালাম,নুরুল ইসলাম, আবুল কাশেম,মীর কাসেম, আওয়ামী লীগ নেতা জহিরুল ইসলাম সোনালী, বালুখালী তুমব্রু সিএনজি টমটম মাহিন্দ্রা সমবায় সমিতির সাবেক সভাপতি মোঃ শফিউল্লাহ, ঘুমধুম ঘোনারপাড়া ইসলামী তরুণ সমাজ কল্যাণ পরিষদের সভাপতি রফিকুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেন এবং সাবেক মেম্বার পদপ্রার্থী মোহাম্মদ আলী সওদাগর। সবাই মতামত অনুযায়ী এম ছৈয়দ আলমকে নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার ঘুমধুম ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের সম্ভাব্য মেম্বার প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করার জন্য পরামর্শ দেন। মতবিনিময় সভার সমাপনী বক্তব্যে সম্ভাব্য মেম্বার পদপ্রার্থী এম. ছৈয়দ আলম বলেন ১৪ অক্টোবর নির্বাচনকে সামনে রেখে আমার গ্রামের মানুষদের পক্ষ হয়ে আপনাদের পরামর্শ অনুযায়ী কাজ করব এবং আপনাদের উপর ভরসা রেখে আমি সামনের নির্বাচনে অংশগ্রহণ করব। তিনি উপস্তিতি জনতার উদ্দেশ্যে আরও বলেন আপনারা আমাকে মনের ভিতর থেকে সম্মতি না দিয়ে আমাকে নির্বাচনের মাঠে নামিয়ে দিবেন না, আপনারা প্রত্যেকজন এম.ছৈয়দ আলম হিসেবে এখন যেভাবে সহযোগিতা করতেছেন ঠিক তেমনি ভাবে নির্বাচনের সময়ে ও আপনাদের আমার পাশে থেকে পরিপূর্ণ সমর্থন চাই। তিনি আরও বলেন এই অবহেলিত গ্রামকে উন্নয়নের ছোয়া বহমানের জন্য গ্রামের মানুষদের সুখে দুঃখে পাশে থাকার জন্য আমাকে একটু সুযোগ দিন। অবশেষে সকলের প্রতি সু-স্বাস্থ্য ও দোয়া কামনা করে নির্বাচনী মত বিনিময় সভার সমাপ্তি ঘোষণা করেন।